উম্মুল মুমিনিন হযরত খাদিজা আত-তাহিরা (রা.) (অপরিশোধযোগ্য এক ঋণ)

৳ 150.00

  • উম্মুল মুমিনিন হযরত খাদিজা আত-তাহিরা (রা.)
    [ অপরিশোধযোগ্য এক ঋণ ]
  • মূল : সাইয়্যেদ আখতার আলী রিজভী
  • অনুবাদ : মোস্তফা কামাল
  • প্রকাশকাল : প্রথম- একুশে বইমেলা ২০১৩
    দ্বিতীয়- একুশে বইমেলা ২০১৫
  • প্রচ্ছদ : মোঃ তানভীরুল ইসলাম (মিঠু), চিত্রশিল্পী
  • পৃষ্ঠা সংখ্যা : ১৬৮
  • ISBN: 978-984-91565-2-9

মুসলিম উম্মাহর জননী হযরত খাদিজাতুল কুবরা (রা.) ছিলেন ইসলামের প্রাথমিক যুগের কুরবানিদাতাদের শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তিত্ব। তিনি আল্লাহর রাসূল (সা.)-এর পরম প্রিয় সহধর্মিণী, তাঁর নবুয়াতের প্রতি প্রথম বিশ্বাস স্থাপনকারিণী এবং রূপে-গুনে-চরিত্রে-মাহাত্ম্যে বিস্ময়কর ব্যক্তিত্বের অধিকারিণী ছিলেন।
ইসলামের সূচনালগ্নের ইসলাম ও মুসলমানদের সেবায় তিনি ছিলেন উজ্জ্বল নক্ষত্র। কিন্তু ভাগ্যের কী নির্মম পরিহাস, তিনি আজ ইতিহাসের অপরিচিতি চারত্রে পরিণত হয়ে আছেন। তাঁর নাম বিস্মৃতির অতল গহ্বরে হারিয়ে গেছে। যেন কোনো কালেই মুসলমানদের কোনো কাজে তাঁর ভূমিকা ছিল না!
সম্মিলিত আরব সম্প্রদায়ের অবিরাম অসহযোগিতায় যখন মুসলিম সম্প্রদায় ও হাশেমী বংশের লোকজন অত্যন্ত নূব্জ্য হয়ে করুণ পরিস্থিতিতে কালাতিপাত করছিল, তখন তিনি নিঃস্বার্থভাবে আর্থিক কুরবানির মাধ্যমে তা লাঘব করার সর্বাত্মক সংগ্রাম করেছেন।
অথচ আজ সেই মহীয়সী রমণী মুসলমানদের নিকট প্রায় উপেক্ষিত। তাঁর মহোত্তম অবদানের কোনো স্বীকৃতি মুসলিম-সমাজে নেই, হাজারো মিথ্যা ইতিহাসের বিশাল পাহাড়ের নিচে চাপা পড়ে গেছে তাঁর অসামান্য আবদানের ইতিহাস।
বাংলা ভাষায় হযরত খাদিজা (রা.)-এর তথ্যবহুল উল্লেখযোগ্য কোনো জীবনীগ্রন্থ প্রকাশে অদ্যাবধি কোনো প্রকাশক এগিয়ে আসেননি। যা-ও কিছু বাজারে প্রচলিত আছে সেগুলো শুধুই কতিপয় মিথ্যাবাদীর অলীক কল্প-কাহিনি ছাড়া আর কিছুই নয়।
বাংলা ভাষায় আমরাই প্রথম হযরত খাদিজাতুল কুবরা (রা.)-এর একটি স্বচ্ছ জীবনীগ্রন্থ প্রকাশ করেছি। এতে তাঁর জীবনের উল্লেখযোগ্য ঘটনাবলি সন্নিবেশিত হয়েছে। বাজারের মিথ্যা তথ্যপূর্ণ বইগুলো দেখে সর্তকতা অবলম্বন করা হয়েছে, যাতে সত্য-মিথ্যার সংমিশ্রণ না ঘটে। একাধিক বিশিষ্ট বক্ত্যি দ্বারা পর্যালোচনা করা হয়েছে; যেন কোনো অলীক কল্প-কাহিনি এতে অনুপ্রবেশ না করে।
মহান আল্লাহর নিকট আকুল প্রার্থনা এই যে, গ্রন্থটি পাঠ করে বাংলা ভাষাভাষী পাঠকেরা যেন ইতিহাসগত বিভ্রান্তি থেকে মুক্ত হয়ে সত্যাশ্রয়ী হতে পারে। এই হেদায়েতের বিনিময়ে তিনি যেন নিদানকালে আমাদেও সকলকে জান্নাতের সু-উচ্চ আসন দান করেন। আমিন!
– প্রকাশক

 

গ্রন্থাকারের ভূমিকা

উম্মুল মুমিনিন হযরত খাদিজাতুল কুবরা (রা.) ছিলেন মক্কার ধনাঢ্য ব্যক্তিদের মধ্যে শীর্ষস্থানীয়। বহির্বিশ্বে বাণিজ্য পরিচালনায় তাঁর অত্যন্ত সুনাম ও সুখ্যাতি ছিল।
তিনি ছিলেন আল্লাহর রাসূল (সা.)-এর প্রথমা স্ত্রী, তাঁর নবুয়াতের প্রতি প্রথম বিশ্বাস স্থাপনকারী এবং রূপে-গুনে-চরিত্র-মাহাত্ম্যে বিস্ময়কর ব্যক্তিত্বের অধিকারিণী। ইসলামের সূচনালগ্নের ইতিহাসে ইসলাম ও মুসলমানদের সেবায় তিনি ছিলেন এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। ইসলাম নামক উদীয়মান বৃক্ষের গোড়ায় বিশুদ্ধ পানি সিঞ্চনে তাঁর ভূমিকা ছিল অতুলনীয়।
এই মহীয়সী রমণী এবং মহামতি হযরত আবু তালিব ইসলামের ভাগ্যাকাশে তাৎক্ষণিকভাবে উল্কাপি-ের ন্যায় মুসলমানদের সাহায্যকারী হিসেবে আর্বিভূত হননি; বরং তা ছিল আল্লাহ কর্তৃক পূর্ব-নির্ধারিত। আরবের বিভিন্ন গোত্র কর্তৃক টানা তিন বছর ইসলাম, মুসলিম ও হাশেমী সম্প্রদায়ের লোকজনের ওপর আরোপিত অবরোধে যখন তাঁরা অত্যন্ত করুণ পরিস্থিতির মোকাবেলা করছিল, তখন এঁরা নিঃস্বার্থভাবে আর্থিক কুরবানির সাহায্যে এ করুণ দুর্যোগ ও সংকট লাঘব করার সর্বাত্মক প্রচেষ্টা করেছেন।
বিশেষত হযরত খাদিজাতুল কুবরা (রা.)-এর দৃঢ়তা, স্বীয় সিদ্ধান্তে অটলতা, আল্লাহ ও রাসূল (সা.)-এর ওপর সুদৃঢ় ঈমান, রাসূল (সা.)-এর লক্ষ বাস্তবায়ন ও তাঁর দাওয়াতি কাজের প্রতি অবিচল আস্থার কারণেই ইসলামের প্রথম দশ বছরের অস্তিত্ব অব্যাহত চাপের মুখেও টিকে থাকা স্বভাবতই এক বিস্ময়কর ঘটনা মনে হলেও তাঁদের বিশেষত হযরত খাদিজা (রা.)-এর অসামান্য ভূমিকাতেই তা অনেকটা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হয়েছে।
কিছু রহস্যময় কারণে ইসলামের উত্থানের পেছনে হযরত খাদিজা (রা.)-এর ভূমিকা ঐতিহাসিক ও জীবনীকারদের লেখায় সুস্পষ্টভাবে ফুটে উঠেনি। তাঁর স্বীকৃতি হিসেবে যা কিছু লিপিবদ্ধ করা হয়েছে সেগুলো নেহায়েত নামমাত্র।
আমাদের জানামতে হযরত খাদিজা (রা.)-এর উল্লেখযোগ্য কোনো জীবনী এখনো প্রকাশিত হয়নি। বর্তমানে এমন একটি সময় অতিক্রান্ত হতে যাচ্ছে, যখন পশ্চিমাবিশ্বে নারী-স্বাধীনতার নামে চলছে নারীর প্রতি চরম অপমান ও লাঞ্ছনা প্রদর্শন। ইসলাম ক্রমবর্ধমানশীল অথচ আমাদের সাহিত্যে প্রেরণাময় এসকল ঐতিহাসিক ভূমিকার উপস্থিতি একেবারেই নগণ্য।
বিভিন্ন উৎস থেকে হযরত খাদিজা (রা.)-এর জীবনের যে-সকল তথ্য-উপাত্ত পাওয়া যায়, সেগুলো যৎসামান্য ও বিচ্ছিন্ন। আবার এই যৎসামান্য ও বিচ্ছিন্ন তথ্য-উপাত্তগুলোও যে সর্বাংশে বিভ্রান্তমুক্ত তা বলা শক্ত। জীবনীকার ও ঐতিহাসিকদের প্রধান কর্তব্য হলো, ইসলামের ইতিহাস বিনির্মাণে ঐতিহাসিক ব্যক্তিত্বদের সমসাময়িক ভূমিকার পর্যাপ্ত মূল্যায়নসম্বলিত প্রকৃত জ্ঞানের আবহ তৈরি করা।
ইসলামের প্রারম্ভিক ইতিহাসে সাইয়্যেদা হযরত খাদিজাতুল কুবরা (রা.) ছিলেন সবচেয়ে ব্যক্তিত্ববান ও মমতাময়ী একটি চরিত্র। তাঁর জীবনযাত্রা, সাহসিকতা ও প্রশংসনীয় ভূমিকার ইতিহাসকে বাদ দিয়ে কখনোই ইসলামের ইতিহাস úূর্ণাঙ্গতায় লাভ করতে পারে না। হযরত খাদিজা (রা.) স্বয়ং ইসলামের এক অপরিশোধযোগ্য ঋণ।
আমরা হযরত খাদিজা (রা.)-এর মতো একজন মহীয়সীর এমন একটি জীবনী প্রকাশ করার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছি, যা যৌক্তিক মনন ও নীতির প্রতিফলনকারী, যা আগামী দিনের ঐতিহাসিক ও জীবনীকারদের গবেষণার খোরাক।
বিশ্ব মুসলিম-সমাজের জন্য তাঁর জীবনী প্রকাশের আবশ্যকতার আরেকটি কারণ হলো, তিনি ছিলেন তাঁর প্রাণপ্রিয় স্বামী হযরত রাসূল (সা.)-এর দুঃসময়ের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য সহযাত্রী।
আমরা এই গ্রন্থ প্রকাশের মাধ্যমে হযরত খাদিজা (রা.)-এর জীবনের বিভিন্ন উৎস থেকে বিক্ষিপ্ত উপাদানগুলোকে সন্নিবেশিত করার চেষ্টা করেছি। তবে এটাও স্বীকার করছি যে, এই চেষ্টাটাও আমাদের দৃষ্টিতে পর্যাপ্ত নয়। এটি অন্তর্নিহিত অর্থের নিছক একটি রূপরেখা মাত্র যা গবেষণামূলক কাজের ক্ষেত্রে একটা সময় পর্যন্ত সূত্র হিসেবে কাজে লাগবে, এর বেশি নয়।
সকল মুসলিম, বিশেষ করে মুসলিম নারীদের জন্য তাঁর জীবনী জানা অত্যাবশ্যক। কারণ, খাদিজা (রা.) স্বীয় ব্যক্তিত্বকে ইসলামের সঙ্গে এমনভাবে মিশিয়ে ফেলেছিলেন যে, তিনি ইসলামের অন্তরাত্মায় পরিণত হয়েছিলেন।
আক্ষরিক অর্থে হযরত খাদিজা (রা.) ইসলামের জন্যই জীবন-যাপন ও মৃত্যুবরণ করেছেন।
যদি মুসলিম নারীরা দুনিয়ার সুখ-শান্তি ও আখিরাতের মুক্তির সন্ধান পেতে চান তবে হযরত খাদিজা (রা.)-এর কর্মনীতিকে অনুসরণ করা তাদের জন্য অত্যন্ত জরুরি। তিনি আল্লাহ তায়ালার সন্তুষ্টি অর্জনের রহস্যের উন্মোচক ও দো-জাহানের সাফল্যের দ্বার উন্মোচনের চাবিকাঠি। আল্লাহ তাঁকে এবং তাঁর পরিবারকে আরো মহিমান্বিত করুন। -আমীন। সাইয়্যেদ আলী আখতার রিজভী

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “উম্মুল মুমিনিন হযরত খাদিজা আত-তাহিরা (রা.) (অপরিশোধযোগ্য এক ঋণ)”

Your email address will not be published.

Quality
Price
Service